সোমবার, ১৭ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৩রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
আজ সোমবার | ১৭ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

আজ ভয়াল ২৯ এপ্রিল!

বৃহস্পতিবার, ২৯ এপ্রিল ২০২১ | ৩:৫১ পূর্বাহ্ণ | 48Views

আজ ভয়াল ২৯ এপ্রিল!

চট্টলা ডেক্স:

আজ ভয়াল ২৯ এপ্রিল। ১৯৯১ সালের আজকের এই দিনে এক ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড় আঘাতে ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন হয়েছিল দেশের উপকূল। ১৯৯১ সালের ২২ এপ্রিল মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে বঙ্গোপসাগরে একটি গভীর নিম্নচাপের সৃষ্টি হয়।

২৪ এপ্রিল নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেয় এবং উত্তর-পূর্ব দিকে অগ্রসর হতে থাকে। অগ্রসর হওয়ার সময় এটি আরও শক্তিশালী হয়। ২৮ ও ২৯ এপ্রিল এটির তীব্রতা বৃদ্ধি পায় এবং এর গতিবেগ পৌঁছায় ঘণ্টায় ১৬০ মাইলে।

২৯ এপ্রিল রাতে এটি চট্টগ্রামের উপকূলবর্তী অঞ্চলে ঘণ্টায় ১৫৫ মাইল বেগে আঘাত করে। স্থলভাগে আক্রমণের পর এর গতিবেগ ধীরে ধীরে কমতে থাকে এবং ৩০ এপ্রিল এটি বিলুপ্ত হয়। এই ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয় বাংলাদেশের ১৯টি জেলার ১০২টি উপজেলা।

ঘূর্ণিঝড়ের তান্ডবে সেদিন
ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয় সন্দ্বীপ, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, কুতুবদিয়া, চকরিয়া, মহেশখালী, পেকুয়া, বাঁশখালী, টেকনাফ ও ভোলা। ১৯৯১ সালের এই ঝড়ে প্রায় দেড়লক্ষাধিক মানুষ মৃত্যুবরণ করে এবং তার সমপরিমাণ চেয়ে বহু মানুষ আহত হয়।

আমার এখনো মনে আছে, তখন কয়েক মিনিট পর পর রেড়িও, টিভিতে একটু পরপর বিভিন্ন হুঁশিয়ারি সংকেত শোনানো হচ্ছিল। ১৫-২০ ফুট জলোচ্ছ্বাসসহ সেই প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে সরকারি হিসাবেই ১ লাখ ৩৮ হাজার মানুষ মারা যায়। প্রায় ১ কোটি মানুষ আশ্রয়হীন হয়েছিল। সে সময় মানুষের বিপুল পরিমাণ সম্পদের ক্ষতি হয়েছিল।
বর্তমান সময়ের মতো সে সময় ঘূর্ণিঝড়ের বার্তা প্রচার ও মাইকিং হলেও গুরুত্ব না দিয়ে মানুষ সেভাবে আশ্রয়কেন্দ্রে যায়নি। অনেকের কাছে খবর না পৌঁছানোর কারণে তারা বাড়িতে অবস্থান ছিল।

সেই ভয়াল ২৯ এপ্রিলের ৩০ বছর পর আজ আরও একবার বাংলাদেশ ভয়াবহ সংকটের মুখে। সংকটে সারা পৃথিবীর মানুষ। বলা হচ্ছে stay home stay safe…।

-Advertisement-
Recent  
Popular  

Our Facebook Page

-Advertisement-
-Advertisement-