• রবিবার, ২২ মে ২০২২, ১০:৪১ অপরাহ্ন
Headline
দক্ষিণ মিঠাছড়ি আওয়ামী লীগের কমিটিতে বিএনপি-জামায়াত ও চিহ্নিত মাদক কারবারি ‘হাতের মুঠোয় ভূমি সেবা’ ইয়েস-কক্সবাজারের কার্যকরি পরিষদ পুনর্গঠন ভূমিদস্যুদের মিথ্যাচার ও প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ লোহাগাড়ায় পুলিশের উপর হামলার মূলহোতা কবির ও তার সহযোগী র‍্যাবের হাতে আটক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ভিত্তিক প্রতিভা অন্বেষণ করছে কক্সবাজার সাহিত্য একাডেমী জাহাজ মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদকের পিতার মৃত্যু, তোফায়েল আহমেদের শোক টেকনাফে মাদক কারবারি ভুট্টুর পা কেটে হত্যা কুতুবদিয়া বড়ঘোপ ৪নং ওয়ার্ড আ. লীগের কমিটি অনুমোদন, সভাপতি কামাল, সম্পাদক আব্দুস সাত্তার লোহাগাড়ায় বেড়াতে এসে পুকুরে ডুবে হেফজ বিভাগের ছাত্রের মৃত্যু

লামায় ডায়রিয়ার প্রাদূর্ভাব: মৃত্যু ১, আক্রান্ত শতাধিক

চট্টলা অফিস / ৪৮ Time View
Update : মঙ্গলবার, ২৬ এপ্রিল, ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক:

বান্দরবানের লামা উপজেলার দুর্গম পাহাড়ি রূপসীপাড়া ইউনিয়নে মিনতুই ও পমমং ¤্রাে পাড়ায় ডায়রিয়া রোগের প্রাদূর্ভাব দেখা দিয়েছে। ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে ১ জনের মৃত্যু হয়েছে এবং শতাধিক আক্রান্ত হয়েছেন। পাহাড়ি ঝিরি ও ঝর্ণার দূষিত পানি পান করার কারণেই পাড়াগুলোতে ডায়রিয়া ছড়িয়ে পড়ে বলে ধারণা স্থানীয়দের। খবর পেয়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একটি টিম চিকিৎসা সেবা প্রদান করছেন।

রূপসীপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য লংক্রাত ¤্রাে জানান, গত রবিবার সকাল থেকে মিনতুই ¤্রাে পাড়ার লোকজনের মধ্যে হঠাৎ ডায়রিয়ার প্রাদূর্ভাব দেখা দেয়। এরপর পাশের পমপং পাড়ার লোকজনের মাঝেও ডায়রিয়া ছড়িয়ে পড়ে। এতে সোমবার রাত ২টার দিকে মিনতুই পাড়ার বাসিন্দা মৃত পালেং ¤্রাে’র ছেলে মাংচি মুরুং (৫১) মারা যান। এক পর্যায়ে দুই পাড়ার ৩৩ জনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

খবর পেয়ে আলীকদম সেনাবাহিনীর একটি মেডিকেল টিম গত সোমবার দিনব্যাপী মিনতুই ও পমপং ম্রো পাড়া সহ আশপাশের মোট ১২৫ জন রোগিকে চিকিৎসা এবং বিনামুল্যে ঔষধ প্রদান করেন। এর আগে অবস্থার অবনতি হলে দুইটি ¤্রাে পাড়ার ৩৩ জন শিশু ও বয়স্ক নারী পুরুষকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন স্থানীয়রা।

এদিকে স্থানীয়রা জানান, প্রতি বছর শুস্ক মৌসুমে পাহাড়ের পল্লী গুলোতে খাবার পানির তীব্র সংকট দেখা দেয়। পাড়া গুলোর অবস্থান পাহাড়ের চূড়ায় হওয়ায় টিউবওয়েল ও রিং ওয়েল স্থাপনেরও সুযোগ থাকেনা। তাই দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় বসবাসরত মানুষ গুলো বাধ্য হয়ে ঝিরি ও ঝর্ণার পানি পান করে থাকেন। মূলত এসব ঝিরি ও ঝর্ণার দূষিত পানি পান করার কারণেই পাড়া গুলোতে ডায়রিয়া ছড়িয়ে পড়ে।

লামা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসক মোহাম্মদ রোবীন বলেন, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আন্ত: ও বহি: বিভাগে প্রতিদিন ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীরা চিকিৎসা সেবা নিতে ভিড় জমাচ্ছেন। গত ১ সপ্তাহ ধরে ডায়রিয়া রোগীর চাপ বেড়েছে। গত দুই দিনে দুইটি ম্রো পাড়ার ৩৩ জন শিশু ও বয়স্ক নারী পুরুষ ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এই মুহূর্তে ডায়রিয়া রোগের ঔষধের কোন সংকট নেই। কমপ্লেক্সের শয্যা সংখ্যা ৫০টি হলেও অতিরিক্ত রোগী ভর্তি হওয়ায় মেঝেতেও চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে বলেও জানান এ কর্মকর্তা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category