• মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ০৯:৩৭ অপরাহ্ন
Headline
অসুস্থ সাংবাদিক সায়েদ জালালের বসতবাড়িতে ভাংচুর, আদালতের নিষেধাজ্ঞা জারি হাই কমিশনার ফিলিপ গ্র্যান্ডির জন্য আমাদের বার্তা দক্ষিণ মিঠাছড়ি আওয়ামী লীগের কমিটিতে বিএনপি-জামায়াত ও চিহ্নিত মাদক কারবারি ‘হাতের মুঠোয় ভূমি সেবা’ ইয়েস-কক্সবাজারের কার্যকরি পরিষদ পুনর্গঠন ভূমিদস্যুদের মিথ্যাচার ও প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ লোহাগাড়ায় পুলিশের উপর হামলার মূলহোতা কবির ও তার সহযোগী র‍্যাবের হাতে আটক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ভিত্তিক প্রতিভা অন্বেষণ করছে কক্সবাজার সাহিত্য একাডেমী জাহাজ মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদকের পিতার মৃত্যু, তোফায়েল আহমেদের শোক টেকনাফে মাদক কারবারি ভুট্টুর পা কেটে হত্যা

পেকুয়ায় শিক্ষা অফিসের কর্মচারীর বাড়ি থেকে বিপুল পরিমাণ পিএসসির সনদপত্র জব্দ!

Reporter Name / ১৬৬ Time View
Update : রবিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২২

মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, পেকুয়া

কক্সবাজার জেলার পেকুয়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে কর্মরত মাষ্টার রোলের কর্মচারী মঈন উদ্দিন ওরফে মনিরের বাড়ির আলমিরা থেকে বিপুল পরিমান পিএসসি’র (প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা) ব্লাঙ্ক সনদপত্র জব্দ করা হয়েছে। এসময় ওই কর্মচারীর বাড়ি থেকে সরকারী অফিসের আরো বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ন কাগজপত্রও উদ্ধার করা হয়। আজ ১৩ ফেব্রুয়ারী রাত সাড়ে ১০টার দিকে পেকুয়া উপজেলার সদর ইউনিয়নের গোঁয়াখালী উত্তর পাড়া গ্রাম থেকে পেকুয়া প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের কর্মচারী মঈন উদ্দিনের বাড়ির একটি আলমিরা থেকে এসব সরকারী কাগজপত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

স্থানীয় এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শীদের সূত্রে জানা গেছে, বিগত ১০/১২ বৎসর ধরে পেকুয়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে মাষ্টার রোলে অফিস সহায়ক পদে কর্মরত রয়েছে মঈন উদ্দিন ওরফে মনির (২৮) নামের এক যুবক। ওই যুবকের সাথে পরিবারের বনিবনা না হওয়ায় গতকাল ১৩ ফেব্রুয়ারী বিকালে পুলিশের মাধ্যমে তার কক্ষের মালামাল থানায় নিয়ে যায়। মঈন উদ্দিনের কক্ষের সব মালামাল থানায় নিয়ে গেলেও একটি স্টীলের আলমিরা সে থানায় নিয়ে যায়নি। পরে পুলিশ বাড়ি থেকে চলে যাওয়ার পর মনিরের পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের মাঝে ওই আলমিরা নিয়ে সন্দেহ হলে সেটি খুলে দেখেন। এসময় মনিরের কক্ষে থাকা স্টীলের আলমিরায় পেকুয়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের গুরুত্বপূর্ন কাগজপত্র দেখতে পেয়ে মনিরের ছোটভাই স্থানীয় কয়েকজন সংবাদকর্মীকে বিষয়টি অবহিত করেন। পরে রাতে সংবাদকর্মীরা মনিরের বাড়িতে সংবাদ সংগ্রহের জন্য উপস্থিত হন।

এসময় সংবাদকর্মীরা বিষয়টি ফোনে কক্সবাজার জেলা শিক্ষা অফিসারকে অবহিত করেন। জেলা শিক্ষা অফিসারের নির্দেশে পেকুয়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সালামত উল্লাহ খাঁন দ্রুত তার পক্ষে পেকুয়া মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাষ্টার হানিফ চৌধুরী ও সরকারী স্কুলের শিক্ষক মো: শাহাব উদ্দিনকে মনিরের বাড়ীতে পাঠান।

সরেজমিনে দেখা গেছে, পেকুয়া উপজেলা শিক্ষা অফিসারের প্রেরিত প্রতিনিধি দলের প্রধান মাষ্টার হানিফ চৌধুরী স্থাণীয় এলাকাবাসী ও সংবাদকর্মীদের উপস্থিতিতে মনিরের কক্ষের আলমিরা থেকে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীর প্রায় ২২৩ কপি ব্লাঙ্ক সনদপত্র ও প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের কিছু গুরুতবপূর্ণ কাগজপত্র উদ্ধার করেন। উদ্ধারকৃত এসব কাগজপত্রের জব্দ তালিকাও স্থানীয় স্বাক্ষীদের উপস্থিতিতে প্রস্তুত করে শিক্ষা অফিসে নিয়ে যান ।

পেকুয়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে কর্মরত মাষ্টার রোলের কর্মচারী মনিরের বাড়িতে থেকে সরকারী কাগজপত্র উদ্ধার শেষে অপেক্ষামান স্থানীয় সংবাদকর্মীদের কাছে ব্রিফিং করেন মাষ্টার হানিফ চৌধুরী। তিনি বলেন, সরকারী অফিসের গুরুত্বপূর্ন কাগজপত্র মনির নামের ওই কর্মচারী নিজ বাসার আলমিরায় হেফাজতে রাখার ঘটনাটি গুরুতর অপরাধ। এ ঘটনায় আগামী কালকের মাধ্যমে প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে প্রতিবেদন দাখিল করা হবে।

এ প্রসঙ্গে পেকুয়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সালামত উল্লাহ খাঁন জানান, খবর পাওয়ার মাত্রই শিক্ষা অফিস থেকে দুই জন প্রতিনিধি প্রেরণ করে মনিরের বাড়ীতে পিএসসি’র সনদসহ কিছু কাগজপত্র উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় ওই কর্মচারীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও এ কর্মকর্তা জানিয়েছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category