• মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ১১:৪৬ পূর্বাহ্ন

চকরিয়ার ইউএনও সৈয়দ শামসুল তাবরীজ পদোন্নতিজনিত বিদায় উপলক্ষে সংবর্ধনা

Reporter Name / ১২৯ Time View
Update : বুধবার, ৫ জানুয়ারী, ২০২২

এম.মনছুর আলম, চকরিয়া :

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সৈয়দ শামসু্ল তাবরীজ পদোন্নতি জনিত বিদায় উপলক্ষে বাংলাদেশ ইউনিয়ন পরিষদ সচিব সমিতি (বাপসা) চকরিয়া উপজেলার পক্ষথেকে বিদায় সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে।

বুধবার (৫জানুয়ারী) বিকেলে উপজেলা পরিষদের হলরুম মোহনা মিলনায়তনে ইউএনও সৈয়দ শামসু্ল তাবরীজকে এ বিদায় সংবর্ধনা দেয়া হয়।

আয়োজিত অনুষ্ঠানের শুরুতে বিদায়ী ইউএনওকে সকল ইউপি সচিবদের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়।

বিদায় সংবর্ধনার জবাবে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ইউএনও সৈয়দ শামসু্ল তাবরীজ উপস্থিত সচিবদের কাজের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, সরকারের তৃণমূল পর্যায়ে জনসাধারণের দৈনন্দিন সেবা প্রদানসহ বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে সচিবগণ বিরাট ভূমিকা রাখেন। পাশাপাশি সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকেও অনেক সচেতনতামূলক কর্মকাণ্ড বাস্তবায়ন করে থাকেন। এ সময় তিনি ইউএনও’র দায়িত্ব পালনকালে সচিবগণ সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড, প্রকল্প বাস্তবায়ন, প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও সম্প্রতি সময়ে অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া ১৮টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তাঁকে সার্বিক ভাবে সহযোগিতা করায় যা সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে বলে তিনি জানান।

চকরিয়া উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদ সচিব সমিতি (বাপসা) সভাপতি ও পশ্চিম বড় ভেওলা ইউপি সচিব ফয়সাল উদ্দিন আহমদের সভাপতিত্বে এবং হারবাং ইউপি সচিব সালাহ উদ্দিন কাদেরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন, সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়নের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান আজিমুল হক আজিম, বদরখালী ইউনিয়নের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান নুরে হোছাইন আরিফ, বাংলাদেশ ইউনিয়ন পরিষদ সচিব সমিতি (বাপসা) কক্সবাজার যুগ্ন সম্পাদক ও ডুলাহাজারা ইউপি সচিব হুমায়ুন কবির, চকরিয়া উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদ সচিব সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও চিরিংগা ইউপি সচিব আতাউল গনি পারভেজ, লক্ষ্যারচর ইউনিয়নের উদ্যোক্তা ইসমাঈল তুহিন, চকরিয়া উপজেলার গ্রাম পুলিশের সভাপতি হেলাল উদ্দিন প্রমুখ।

এ সময় উপজেলার ১৮ ইউনিয়নের ইউপি সচিব, উপজেলা টেকনেশিয়ান এরশাদুল হক, ইউনিয়নের উদ্যোক্তা, গ্রাম পুলিশসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে সচিবগণ তাদের বক্তব্যে বলেন, ইউএনও হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে উপজেলার ১৮টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা এলাকায় তৃণমূল মানুষের কল্যাণে নিরলস ভাবে যে কর্মকাণ্ড পরিচালনা করেছে উপজেলাবাসী দীর্ঘদিন আপনাকে মনে রাখবে। বিশেষ করে কোভিড়-১৯ করোনাকালীন সময়ে জীবনের ঝুঁকি দিন-রাত মানুষকে করোনা আক্রান্ত থেকে বাঁচাতে যে ভুমিকা রেখেছে তা সত্যিই অতুলনীয়। আর কাজের ক্ষেত্রে ইউনিয়ন পরিষদ সচিবদের আইনী পরামর্শসহ বিভিন্ন উন্নয়ন ও প্রকল্প বাস্তবায়নে দিক-নির্দেশনামূলক উপদেশ সকলকে দায়িত্ব পালনে আরো বেশি উৎসাহিত করেছে। যা কর্মময় জীবনে চলার পাথেয় হয়ে থাকবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category