• মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ১১:৫৩ পূর্বাহ্ন

চুনতিতে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর ছেলের নেতৃত্বে সন্ত্রাসী হামলার অভিযোগ স্বতন্ত্র প্রার্থীর

চট্টলা অফিস / ১৬৬ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক:

লোহাগাড়ার চুনতি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী জয়নুল আবেদীন জনু কোম্পানীর ছেলের নেতৃত্বে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী নুর মোহাম্মদ শহিদুল্লাহর কর্মীর উপর সন্ত্রাসী হামলার অভিযোগ উঠেছে।

স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী নুর মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ্ সন্ত্রাসী হামলার অভিযোগ তুলে সংবাদ সম্মেলন করেন।

বৃহস্পতিবার (১৬ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা ৫টায় উপজেলার চুনতি ফরেস্ট অফিস সংলগ্ন নির্বাচনী অফিসে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন চশমা প্রতীকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী নুর মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ্।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, গত ১৫ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় সাড়ে ৫ টায় চুনতি সাতগড় মাঝির পাড়া (ইসহাক মিয়া সড়ক) দোকানের পূর্বে আমি ও আমার কর্মীরা নারিশ্চ্যা এলাকা থেকে সারাদিন প্রচারণা শেষে ফেরার সময় পূর্ব থেকে উৎপেতে থাকা চুনতি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের আমার প্রতিদ্বন্দ্বি নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থীর ছেলে এরশাদুর রহমান রিয়াদের নেতৃত্বে আনুমানিক শতাধিক বহিরাগত সন্ত্রাসীরা আমার কর্মীদের বহনকৃত গাড়ির সামনে ব্যারিকেড দিয়ে থামিয়ে অকথ্য ভাষায় গালি দিয়ে দেশীয় অস্ত্র , লাঠি-সোটা , হকষ্টিক, দা-কিরিচ নিয়ে হামলা চালায়। এতে আমার কর্মী মোহাম্মদ শোয়াইবুল ইসলাম , মোহাম্মদ আবদুল হামিদ , আবুল কালাম , মোঃ আনোয়ার , মোঃ হোছাইন , বদিউল আলম ও গাড়ি চালক বাবু গুরুতর আহত হন এবং তাদের বহনকৃত নোহা গাড়ি ও ভাংচুর করে। বিষয়টি দৃশ্যমান । আমার কর্মীদের মারধর করে তাদের ব্যবহৃত মোবাইল সেট , নগদ টাকা ছিনিয়ে নেন ।

তিনি আরো বলেন, নির্বাচনে আমার জনপ্রিয়তায় ইর্ষান্বিত হয়ে আমার প্রতিপক্ষ প্রার্থী নির্বাচনী মাঠে আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার পায়তারা চালাচ্ছে। এই হামলার আমি তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। আগামী ২৬ শে ডিসেম্বর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সুষ্ঠু, অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচন বানচাল করতে প্রতিপক্ষরা মাঠে প্রতিহিংসারর পায়তারা চালাচ্ছে। আমরা প্রতিহিংসা পরায়ণ লোক নয়, সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে যিনি নির্বাচিত হবে তিনিই চেয়ারম্যান হিসেবে এলাকাবাসীর সেবা করবেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে নুর মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ বলেন, জনগন আমার শক্তি। জনগনের আগ্রহে নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছি। ঘটনারদিন পুর্ব পরিকল্পিত ভাবে আমার কর্মীদের উপর হামলা, গাড়ি ভাংচুর ও লুঠপাট করে উল্টো আমার কর্মী ও আমার বিরুদ্ধে মামলা মামলা দায়ের করেছে। এটি হাস্যকর ছাড়া কিছুই নয়। তিনি প্রশাসনের প্রতি আস্থা ও বিশ্বাস রেখে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণেরও জোর দাবী জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category