• মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ১০:০৭ পূর্বাহ্ন

পেকুয়ায় শুরু হয়েছে মৌলিক সাক্ষরতা প্রকল্পের কাজ

Reporter Name / ৯৭ Time View
Update : শনিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০২১

মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, পেকুয়া

কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলার সাত ইউনিয়নে মৌলিক সাক্ষরতা প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে। করোনা মহামারীর কারণে দীর্ঘদিন উক্ত প্রকল্পের কাজ বন্ধ থাকলেও পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে চলতি মাসের গত ৮ ডিসেম্বর থেকে উপজেলার সাত ইউনিয়নে প্রকল্পের কাজ শুরু হয়ছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, বর্তমান সরকারের উপানুষ্টানিক শিক্ষা ব্যুরোর আওতায় দেশের ৬৪ জেলার নির্বাচিত ২৫০টি উপজেলার ন্যায় পেকুয়া উপজেলাতে ১৫-৪৫ বছর বয়সী প্রায় ১৮ হাজার নিরক্ষর কিশোর-কিশোরী ও বয়স্ক নারী-পুরুষকে মৌলিক সাক্ষরতা ও জীবন দক্ষতা প্রদান করার কাজ বাস্তবায়ন করছে। আর পেকুয়া উপজেলার সাত ইউনিয়নের কাজটি বাস্তবায়ন করছেন কক্সবাজারের অন্যতম বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা ‘প্রোগ্রাম ফর হেলপলেস এ্যান্ড ল্যাগড সোসাইটিজ’ (পালস)।

পেকুয়া উপজেলায় মৌলিক সাক্ষরতা প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য ইতিপূর্বে এনজিও পালস সাত ইউনিয়ন থেকে ৬’শ জন শিক্ষক ও ১৫ জন সুপারভাইজার নিয়োগের কার্যক্রম সুষ্টুভাবে সম্পন্ন করে এদের বুনিয়াদি প্রশিক্ষন সম্পন্ন করেন।

পেকুয়া উপজেলায় মৌলিক সাক্ষরতা প্রকল্পের কাজ বাস্তবায়নকারী এনজিও সংস্থা পালস এর নির্বাহী পরিচালক আবু মোরশেদ চৌধুরী খোকা জানান, উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে প্রায় ৪০টি কেন্দ্রের মাধ্যমে ১৫-৪৫ বছর বয়সী কিশোর-কিশোরী ও বয়স্ক নারী-পুরুষদের মৌলিক সাক্ষরতা ও জীবন দক্ষতা সম্পর্কে হাতে-কলমে শিখন কর্মসূচী বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। চলতি মাসের ৮ ডিসেম্বর থেকে কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যেই সুপারভাইজারের মাধ্যমে প্রতিটি কেন্দ্রের শিক্ষা উপকরণ সুষ্টুভাবে পৌঁছানো হয়েছে।

এদিকে ১১ ডিসেম্বর সকালে দুপুরে পৃথক অনুষ্টানের মাধ্যমে বারবাকিয়া ও শিলখালী ইউনিয়নের প্রতিটি কেন্দ্রে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করা হয়েছে। বারবাকিয়া ইউনিয়ন পরিষদে আয়োজিত অনুষ্টানে প্রধান অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উক্ত ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাওলানা এইচ এম বদিউল আলম জিহাদী। অনুষ্টানে মৌলিক সাক্ষরতা প্রকল্পের বিস্তারিত অবহিত করে বক্তব্য রাখেন এনজিও সংস্থা পালসের পেকুয়া উপজেলা সমন্বয়কারী মো: আবদুল হামিদ। উপস্থিত ছিলেন ইউপি সদস্য মো: ইউনুচসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

অনুষ্টানে প্রধান অথিতির বক্তব্যে ইউপি চেয়ারম্যান বদিউল আলম বলেন’ মৌলিক সাক্ষরতা প্রকল্প সরকারের একটি জনবান্ধব মহৎ প্রকল্প। এই প্রকল্পের মাধ্যমে নিরক্ষতা দূরীকরণে সরকার যে মহতি উদ্যোগ নিয়েছে সেটাকে সাধুবাদ জানাই। তিনি উক্ত প্রকল্পের সফলতা কামনা করেছেন।

অপরদিকে শিলখালীতে উপকরণ বিতরণ ও শিখনকেন্দ্র উদ্বোধন অনুষ্টানে প্রধান অথিতি ছিলেন ইউপি চেয়ারম্যান মো: নুরুল হোছাইনসহ শিলখালী ইউপির একাধিক সদস্য ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category