• বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৩৪ পূর্বাহ্ন
Headline
চরম্বায় বিষপানে গৃহবধূর আত্মহত্যা জয়নুল আবেদীন জনু চেয়ারম্যানকে আবারো চেয়ারম্যান হিসেবে চাই চুনতির জনগণ ব্যাংকিং সেবা সম্পর্কে জানেন না টেকনাফের নারী উদ্যোক্তারা পুটিবিলা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আসতে পারে চমক! পেকুয়ার ৬ ইউপিতে নৌকার মনোনয়ন পেলেন যারা মুহিবুল্লাহ হত্যার ঘটনায় তিন আসামির ২ দিনের রিমান্ড চকরিয়ায় পুজামন্ডপ পাহারা দেয়া যুবলীগ নেতাসহ মামলার আসামী ৩৬ জন টেকনাফের যুবকরা মাদক ও বাল্য বিবাহের ঝুঁকিতেঃ দরকার সম্মিলিত প্রচেষ্টা বালুখালীতে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ১৪৪ পরিবারকে ইপসার অর্থ সহায়তা ও প্রয়োজনীয় সামগ্রী বিতরণ লোহাগাড়ায় পিতার সাথে অভিমান করে সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীর আত্মহত্যা

লোহাগাড়ায় বালুখেকোদের কাণ্ডে হুমকির মুখে টংকাবতী সেতু ও সড়ক

Reporter Name / ৬৫২ Time View
Update : বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক, লোহাগাড়া:

লোহাগাড়ায় বালুখেকোদের কাণ্ডে হুমকির মুখে টংকাবতী সেতু। অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের কারণে নদীগর্ভে বিলীনের পথে সড়ক। ব্রিজের নিচে সরে গেছে মাটি।

নিয়মনুযায়ী সেতু, কালভার্ট, ড্যাম, বাঁধ, রেললাইন, ব্যারেজ ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ সরকারি ও বেসরকারি স্থাপনা অথবা আবাসিক এলাকা থেকে সর্বনিম্ন এক কিলোমিটারের মধ্যে বালু উত্তোলন সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। কিন্তু এ নিয়মনীতির কোন তোয়াক্কাই করছেন না লোহাগাড়ার বালুখেকোরা। সরকারি দলের নাম ভাঙিয়ে দেদারসে এ কাজ করায় স্থানীয়রা কারো কাছে নালিশও করতে পারছেন না।

পদুয়া তেওয়ারীখিল এলাকায় টংকবতী খালের উপর নির্মিত ব্রিজের মাত্র ৫শ মিটারের মধ্যেই ড্রেজার মেশিন বসিয়ে দিনরাত বালু তুলেছে তারা। গত কয়েকদিন আগে এতে করে সড়ক ভেঙে খালে পড়ার উপক্রম হয়েছে। হুমকির মুখে সেতু, মসজিদ, কবরস্থানসহ বেশ কিছু স্থাপনা।

মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) সরেজমিন দেখা গেছে, পদুয়া তেওয়াখীল এলাকার প্রধান সড়কটি ভেঙে টংকবতীর গর্ভে বিলীনের পথে। কোন মতে মানুষ হেঁটে যেতে পারলেও কোন প্রকার গাড়ি তো দূরের কথা সাইকেল পর্যন্ত চলাচলের উপযোগী নয়। বন্ধ হয়ে যেতে পারে আমিরাবাদ ও পদুা এলাকার সড়ক যোগাযোগ। এছাড়া মক্কি জামে মসজিদ ও কবরস্থানও রয়েছে হুমকির মুখে। আর টংকবতী ব্রিজের নিচ থেকে বালু তোলায় পিলারের নিচ থেকে মাটি সরে গিয়ে দেখা যাচ্ছে পাইলিং। স্থানীয়রা এসবের বিরুদ্ধে ক্ষোভ-ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানালেও কারো কাছে নালিশ করতে রাজি নয়। তারা বলছে, যারা বালু তুলছে তারা সবাই নিজেদের বড় বেড় নেতা পরিচয় দিচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে কথা বলে রোষানলে পড়তে চান না।

ওই গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা ফেরদৌস বলেন, বালু উত্তোলনকারীরা সামনে আসলে সালাম করে, পেছন হলেই নানা কথা তাদের। অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করলেও বড় কর্তাদের নজরে থাকে না। প্রধানমন্ত্রীর সরাসরি হস্তক্ষেপ না হলে অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধ হবে না। বালু উত্তোলনকারীরা সরকার দলীয় নেতাকর্মী। তারা তাদের মরিয়াভাবে তাদের প্রভাব বিস্তার করে বালু তুলে যাচ্ছে।

পদুয়া ইনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. জহির উদ্দিন বলেন, অতি বৃষ্টিতে তেওয়ারিখীলের প্রধান সড়কের তিন ভাগের আড়াই ভাগ নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে এলজিইডি অফিস সংস্কার কাজ শুরু করবে।

লোহাগাড়া উপজেলা প্রকৌশলী ইশরাত বিন মুনীর বলেন, ব্রিজের নিচ থেকে মাটি সরে যাওয়ার বিষয়টি আমরা খতিয়ে দেখছি। একইসঙ্গে দ্রুত সময়ের মধ্যে সড়ক সংস্কারে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

লোহাগাড়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. খোরশেদ আলম চৌধুরী বলেন, পদুয়া তেওয়ারীখিল এলাকায় গত মাসেও টংকাবতী নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনকালে বালু উত্তোলনের মেশিন ও পাইপ ধ্বংস করা হয়েছে। ইজারাবিহীন কোথাও থেকে বালু উত্তোলন করলে সঙ্গে সঙ্গে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category