• মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ১০:২৯ অপরাহ্ন
Headline
অসুস্থ সাংবাদিক সায়েদ জালালের বসতবাড়িতে ভাংচুর, আদালতের নিষেধাজ্ঞা জারি হাই কমিশনার ফিলিপ গ্র্যান্ডির জন্য আমাদের বার্তা দক্ষিণ মিঠাছড়ি আওয়ামী লীগের কমিটিতে বিএনপি-জামায়াত ও চিহ্নিত মাদক কারবারি ‘হাতের মুঠোয় ভূমি সেবা’ ইয়েস-কক্সবাজারের কার্যকরি পরিষদ পুনর্গঠন ভূমিদস্যুদের মিথ্যাচার ও প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ লোহাগাড়ায় পুলিশের উপর হামলার মূলহোতা কবির ও তার সহযোগী র‍্যাবের হাতে আটক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ভিত্তিক প্রতিভা অন্বেষণ করছে কক্সবাজার সাহিত্য একাডেমী জাহাজ মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদকের পিতার মৃত্যু, তোফায়েল আহমেদের শোক টেকনাফে মাদক কারবারি ভুট্টুর পা কেটে হত্যা

সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তাফার মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও প্রদীপের ফাঁসি দাবি

Reporter Name / ২৭৭ Time View
Update : মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১

কক্সবাজার অফিস:
মেজর (অব.) সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলার আসামি বরখাস্ত ওসি প্রদীপ কুমার দাসসহ সকল আসামির ফাঁসির দাবিতে কক্সবাজারে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধনে দৈনিক কক্সবাজার বানীর সম্পাদক ও প্রকাশক ফরিদুল মোস্তাফা খান বলেন, ওসি প্রদীপ ঠান্ডা মাথার খুনি। টাকার জন্য তিনি ধরে ধরে মানুষ খুন করতেন। মাদকের সম্রাজ্য ও অপরাধীচক্র নিয়ন্ত্রণ ছিল তার হাতে। প্রদীপের দায়িত্বকালে কত মায়ের বুক খালি হয়েছে; নিরপরাধ মানুষ আসামি করেছে, সঠিক হিসাব অজানা। যেটুকু তথ্য প্রকাশ হয়েছে, তাতেই পিলে চমকানোর অবস্থা। তাকে শতবার ফাঁসিতে ঝুলালেও ক্ষুব্ধ মানুষের আত্মা শান্তি পাবে না।
বক্তব্যে ফরিদ বলেন, আমি নিজেও প্রদীপের মির্মম নির্যাতনের শিকার, যা দুনিয়াবাসী ইতোমধ্যে জেনেছে।
তিনি বলেন, দেশীয় ও অন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোতে ভয়ংকর প্রদীপ ও তার লালিত বাহিনীর অনেক অজানা খবর প্রকাশ হয়েছে। ভুক্তভোগি অনেকে থানা ও আদালতে মামলা করেছে।
বাংলাদেশ সাংবাদিক নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির ব্যানারে আয়োজিত মানববন্ধনে প্রদীপের জুলুম, নির্যাতনসহ নানামুখি অপরাধের চিত্র উপস্থাপন করেন সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তাফা খান।
তিনি বলেন, ওসি প্রদীপ সরকারি চেয়ারে বসে মাদক ব্যবসায় জড়িয়ে পড়েন। নিজেই মাদক সেবন করতেন। অপরাধ নিয়ন্ত্রণ ও ঢাকতে কিছু দালাল পোষতেন। তার এসব অপরাধ তুলে ধরে সংবাদ প্রকাশ করেছিলাম। তাতে ক্ষুব্ধ হন প্রদীপ। আমাকে ঢাকার বাসা থেকে ধরে এনে ‘নিজস্ব টর্চারসেলে’ ঢুকিয়ে বর্বর কায়দায় নির্যাতন করেছে। আমার বিরুদ্ধে একে একে ৬ টি মিথ্যা মামলা দিয়েছে। এসব সাজানো মামলায় আমাকে প্রায় এক বছর জেল খাটতে হয়েছে।
মানববন্ধনে ফরিদুল মোস্তাফা খানসহ ওসি প্রদীপের হাতে নির্যাতিত টেকনাফ, উখিয়াসহ বেশ কয়েটি এলাকার নির্যাতিত পরিবারের লোকজন অংশ গ্রহণ করে। তারা প্রদীপ ও তার লালিত পালিত সিন্ডিকেট সদস্যদের ফাঁসি দাবি করেছে। সেই সঙ্গে সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তাফার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত সব মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category