• শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ১০:৪৮ পূর্বাহ্ন
Headline
কউকের উচ্ছেদ অভিযান দেখে স্ট্রোক করলেন গৃহবধূ ঈদগাঁও বাজার ফরাজী পাড়া সড়ক মৃত্যুফাঁদ পুলিশের কথিত সোর্স আনোয়ারের হাতে জিম্মি নিরীহ মানুষ কুতুবদিয়ায় অযত্নে অবহেলায় সিটিজেন পার্ক! কার্গো বহনে অনিয়ম, ইউএসবাংলার চাকুরি হারালেন দুই কর্মকর্তা কক্সবাজার হোটেল মোটেল গেস্ট হাউস মালিক সমিতির সভাপতি কাশেম, সম্পাদক সেলিম বীর মুক্তিযোদ্ধা মাস্টার মমতাজুল ইসলামের দাফন রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সম্পন্ন কুতুবদিয়া বড়ঘোপ ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান নির্বাচন সম্পন্ন রাঙ্গামাটির চার ইউপি চেয়ারম্যান শপথ গ্রহণ শেষে হত্যা মামলায় গ্রেফতার সোনাকানিয়ায় দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের উপর হামলা পাল্টাপাল্টি অভিযোগ, আহত-১৫

কক্সবাজারে আওয়ামী লীগের ১১ বিদ্রোহী প্রার্থী বহিস্কার

ইমাম খাইর, কক্সবাজার / ৩৭০ Time View
Update : বুধবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১

আগামী ২০ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিতব্য কক্সবাজার জেলার ১৫টি ইউনিয়ন ও ২টি পৌরসভার নির্বাচনে দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে নির্বাচন করায় ১১ বিদ্রোহী প্রার্থীকে সাময়িকভাবে বহিস্কার করা হয়েছে।
বহিস্কৃতরা হলেন- টেকনাফ উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের নুর হোসেন, হ্নীলা ইউনিয়নের কামাল উদ্দিন আহমদ, পেকুয়া উপজেলার টইটং ইউনিয়নের মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ বিএ. মহেশখালী উপজেলার কুতুবজোম ইউনিয়নের মোশারফ হোসেন খোকন, মাতারবাড়ী ইউনিয়নের এনামুল হক রুহুল, মাস্টার মোহাম্মদ উল্লাহ, মাস্টার রুহুল আমিন, আবদুস সাত্তার, হোয়ানক ইউনিয়নের মীর কাসেম চৌধুরী, ওয়াজেদ আলী মুরাদ, কুতুবদিয়া উপজেলার উত্তর ধুরুং ইউনিয়নের সিরাজদৌল্লাহ।
এছাড়া দলীয় প্রার্থীদের বিপক্ষে অবস্থান নেয়ায় টেকনাফ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জাফর আলম (সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান), মহেশখালীর হোয়ানক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জাফর আলম জহুরকেও সাময়িকভাবে বহিস্কার করা হয়।
আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের নির্দেশনা মোতাবেক বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) তাদেরকে সাময়িক বহিস্কার করেছেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক মেয়র মুজিবুর রহমান।
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা অওয়ামী লীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এম.এ মনজুর।
তিনি জানান, দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করে নির্বাচন করায় জেলায় ১১ বিদ্রোহী প্রার্থীসহ ১৩ জনকে সাময়িক বহিস্কার করা হয়েছে। চূড়ান্তভাবে তাদের কেন বহিস্কার করা হবে না তা জানতে চেয়ে আগামী ১৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে কারণ দর্শানোর নির্দেশ দেয়া হয়।
অন্যথায় তাদেরকে চূড়ান্তভাবে বহিস্কারের জন্য বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ বরাবরে সুপারিশ পাঠাবে জেলা আওয়ামী লীগ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category